1. sheikhrobirobi008@gmail.com : dailynayakontho :
  2. admin@dailynayakontho.com : unikbd :
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৫:২২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
রাজশাহীতে ফেইসবুক লাইভে কষ্টের কথা জানিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা। ডেইলি নয়া কণ্ঠ ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন বিএনপির মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক জয়নুল আবেদীন। ডেইলি নয়া কণ্ঠ রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক এর সঙ্গে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের নবগঠিত কমিটির শুভেচ্ছা বিনিময়। ডেইলি নয়া কণ্ঠ মেহেরপুরের আশরাফপুরে উদ্বুদ্ধকরণ অনুষ্ঠান ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা। ডেইলি নয়া কণ্ঠ তানোরে বিয়ের দাবিতে অনশন, অতঃপর। ডেইলি নয়া কণ্ঠ রাজবাড়ী জেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের নবগঠিত কমিটির বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে  শ্রদ্ধা নিবেদন। ডেইলি নয়া কণ্ঠ নদীতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হওয়ার ৪৫ ঘন্টা পর লাশ উদ্ধার। ডেইলি নয়া কণ্ঠ শ্রীপুরে দু-পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত তিন। ডেইলি নয়া কণ্ঠ এক হতভাগ্য পিতার আর্তনাদ, পরিবারের নিষ্ঠুর নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে আজ ঈদের দিনও ঘুরছে পথে পথে। ডেইলি নয়া কণ্ঠ রাজবাড়ীতে কোরবানির মাংস গলায় আটকে যুবকের মৃত্যু। ডেইলি নয়া কণ্ঠ

সুন্দরবনে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা: দুশ্চিন্তায় সুন্দরবনের জেলেরা। ডেইলি নয়া কণ্ঠ

  • প্রকাশিতঃ শনিবার, ১ জুন, ২০২৪
  • ১৫ বার পঠিত

সুন্দরবনে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা: দুশ্চিন্তায় সুন্দরবনের জেলেরা

কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ

বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের বঙ্গোপসাগর উপকূলবর্তী অঞ্চলে অবস্থিত একটি প্রশস্ত বনভূমি যা বিশ্বের প্রাকৃতিক বিস্ময়াবলীর অন্যতম ‌।পৃথিবীর বৃহত্তম নিরবিচ্ছিন্ন জোয়ার ধৌত ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবন বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিম অংশের খুলনা জেলায় অবস্থিত।
সুন্দরবনের নদী- খালে মাছ ও বনে প্রাণীদের বিচরণ ও প্রজনন কার্যক্রমের সুরক্ষায় আজ থেকে টানা তিন মাসের জন্য বন্ধ থাকছে। এ সময় সুন্দরবনের সব নদী ও খালে মাছ ধরা বন্ধের পাশাপাশি পর্যটক প্রবেশেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে সুন্দরবনে প্রবেশের সব ধরনের পারমিট।
সরকারি এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বন বিভাগের কর্মকর্তারা। এ নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছেন সুন্দরবনের ওপর নির্ভরশীল পেশাজীবীরা।
পশ্চিম সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) এ কে এম ইকবাল হোছাইন চৌধুরী নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, জুন থেকে আগস্ট- এই ৩ মাস সুন্দরবনের নদী-খালে মাছের প্রজনন মৌসুম হিসেবে ধরা হয়। এই তিন মাস সুন্দরবনের নদী ও খালে থাকা বেশিরভাগ মাছ ডিম ছাড়ে। এছাড়া এই সময়ে বন্য প্রাণীরও প্রজনন মৌসুম।
তিনি আরো বলেন, ‘এই তিন মাস বনে পর্যটক ও জেলে না গেলে বনের জীববৈচিত্র্য ও বন্যপ্রাণী নিরাপদ থাকবে। ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে সুন্দরবনে প্রাণী ও জীববৈচিত্র্যের যে ক্ষতি হয়েছে, তা দ্রুত কাটিয়ে উঠবে।
অন্যদিকে সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আবু নাসের মোহসিন হোসেন বলেন, আগামীকাল থেকে তিন মাসের জন্য জেলে-বাওয়ালিদের সুন্দরবনে প্রবেশ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। একইসাথে পর্যটকরাও এই সময়ে সুন্দরবনে প্রবেশ করতে পারবে না। ১ সেপ্টেম্বর থেকে পুনরায় সবার জন্য সুন্দরবনের দরজা খুলে দেয়া হবে।
বন বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, সুন্দরবনে মৎস্য সম্পদ রক্ষায় সমন্বিত সম্পদ ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনার (আইআরএমপি) সুপারিশ অনুযায়ী, ২০১৯ সাল থেকে প্রতিবছরের ১ জুলাই থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত দুই মাস সুন্দরবনের সব নদী ও খালে মাছ আহরণ বন্ধ থাকত। ২০২১ সালে মৎস্য বিভাগের সাথে সমন্বয় করে এ নিষেধাজ্ঞা এক মাস বাড়িয়ে ১ জুন থেকে করা হয়েছে। সেই থেকে ১ জুন থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত তিন মাস বনের সব নদী ও খালে মাছ আহরণ বন্ধ রাখা হচ্ছে। এ সময় পর্যটক প্রবেশ, সাধারণ মানুষের চলাচলসহ সুন্দরবনের নদী-খালে মাছ ধরা নিষিদ্ধ থাকবে।
বন বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, সুন্দরবনে প্রায় ২৮৯ প্রজাতির স্থলজ প্রাণী বাস করে। এছাড়া আছে প্রায় ৪২ প্রজাতির স্তন্যপায়ী, ৩৫ প্রজাতির সরীসৃপ, আট প্রজাতির উভচর, বিভিন্ন প্রজাতির মাছসহ ২১৯ প্রজাতির জলজ প্রাণী। বনের নদী ও খালে নৌযান চলাচল করলে মাছের ডিম ছাড়তে সমস্যা হবে, তাই সব ধরনের নৌযানও বন্ধ থাকবে।
খুলনার বন সংরক্ষক মিহির কুমার দো বলেন, সরকারি সিদ্ধান্তে ২০২১ সাল থেকে ১ জুন থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সুন্দরবনের সব ধরনের সম্পদ আহরণ নিষিদ্ধ রয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় এ বছরেও এটা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। মূলত সুন্দরবনের বন্যপ্রাণী ও জীববৈচিত্র্যসহ মৎস্য সম্পদ সংরক্ষণের উদ্দেশ্যে এই তিন মাসব্যাপী নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়ে থাকে।
জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, সুন্দরবনে প্রবেশ তিন মাস বন্ধ থাকবে। তবে এই সময়ে জেলেদের মৎস্য অধিদফতরের মাধ্যমে খাদ্য সহায়তা দেয়া হবে।
বনজীবীদের মধ্যে কয়েকজনের সাথে কথা হলে তারা জানান, ঘূর্ণিঝড় রেমালের সঙ্কেত শুনে ঝড়ের আগেই তারা সুন্দরবন থেকে লোকালয়ে ফিরেছিলেন। এরপর আর বন বিভাগ থেকে বনে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হয়নি। সুন্দরবনে মাছ, কাঁকড়া ও মধু আহরণ করেই সংসার চলে তাদের। তিন মাস পাস বন্ধ থাকবে। এক সপ্তাহ আগে ঝড়ের সঙ্কেত শুনে বন থেকে বাড়িতে ফিরেছে তারা। ফলে খুব বেশি মাছ ধরতে পারেননি। সামনের তিন মাস বন্ধের সময় সংসার চালানোর মতো সঞ্চয় করা টাকাও নেই। এ নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছেন সুন্দরবনের ওপর নির্ভরশীল পেশাজীবীরা।

শেয়ারঃ

এই জাতীয় অন্যান্য সংবাদ
২০২৩ © সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Developed By UNIK BD